বৈজ্ঞানিকের দপ্তর

লক্ষ করি পক্ষীকে->বাউরিয়ায় বাঁশপাতি

মনস্বিনী ঘোষাল

bigganpokkhi-02 (Small) bigganpokkhi01 (Small) 

সময়টা ছিল ২০১৩-র ডিসেম্বর। বাবার সঙ্গে বাউরিয়ায় একটা পিকনিকে যাব ঠিক হল। বাউরিয়া জায়গাটা  কলকাতার বাইরে হাওড়া জেলার শহরতলি। আশা করেছিলাম, কলকাতা শহরে যে সব পাখিদের সচরাচর দেখা যায় না, সেরকম কিছু পাখির নিশ্চয়ই ওখানে দেখা মিলবে। মা ও বাবার উৎসাহ পেয়ে বেরিয়ে পড়লাম, ছ’মাস আগেই বাবার কিনে দেওয়া নতুন ক্যামেরাটা নিয়ে। ক্যামেরাটা কেনার পর থেকে হাত-খুলে ব্যবহার করার ঠিক সুযোগ মেলেনি তখনো।

সেখানেই সুন্দর ছোট্ট এই পাখিটির দেখা মিলল। এ পাখির ইংরিজি নাম ‘গ্রিন বি-ইটার’ (Green Bee-eater)। বাংলা নামটা দারুণ সুন্দর, ‘বাঁশপাতি’। ইংরিজি নাম থেকেই বোঝা যায়, এদের প্রিয় খাদ্য হল মৌমাছি, ভীমরুল জাতীয় পোকা এবং অন্যান্য কীটপতঙ্গ।

শহরতলির মাঠের ধারে টেলিফোন বা ইলেক্ট্রিকের তারে এদের বসে থাকতে দেখা যায়। বাঁশপাতির একটা মজার স্বভাব হল – এরা বিনা কারণেই যে জায়গায় বসে থাকে, সেখান থেকে উড়ে, একটু ঘুর পাক খেয়ে আবার একই জায়গায় ফিরে এসে বসে। পাখিরা সাধারণত গাছের ডালে পাতার আড়ালে বাসা বানায়। কিন্তু এরা বানায় ঢালু জমিতে, সুড়ঙ্গের মত গর্ত করে।

বাউরিয়ায় সেদিন দেখা অন্যরকম পাখিগুলোর মধ্যে এটি ছিল একটি। আমার ক্যামেরায় ধরা পড়া অন্য পাখিগুলির কথাও আবার হবে, অন্য আরেকদিন।

আগের এপিসোডগুলোর লিংক এইখানে পাবে